জনপদ গ্রামীণ জনপদ শিল্প-সাহিত্য-সংস্কৃতি ব্যাবসা-বানিজ্য-অর্থনীতি আমাদের প্রসঙ্গে

,

,

প্রচ্ছদ
ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা
ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা
ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা
Gaibandha.News Logo

ফটো ফিচার

বড় করে দেখতে ছবিতে ক্লিক করুন

ফটো ফিচার
কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা

গাইবান্ধা ডট নিউজ | বুধবার, ০২ আগস্ট, ২০১৭

গাইবান্ধা ডট নিউজ: কুদ্দুস আলম


গাইবান্ধা সদর উপজেলার কামারজানির ইউনিয়নের মাঝিপাড়া। ব্রহ্মপুত্র নদের জলে জাল ফেলে স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে ভালোই যাচ্ছিল তাদের দিনকাল। সকাল-সন্ধ্যা নদে মাছ ধরে বাজারে বিক্রি করে যা আয় হয়, তা দিয়ে ছেলে মেয়েদের পড়নে একট টুকরো মোটা কাপড় আর ডাল ভাতের জোগাড় হতো। কেউ কেউ ছেলেমেয়েদের স্কুলে পাঠিয়ে স্বপ্ন দেখতেন ভবিষ্যৎ গড়ার। কিন্তু সেই স্বপ্ন আর বাস্তবায়ন হচ্ছে না। বাধ সেধেছে ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙন।

আজ বুধবার (০২ আগস্ট) সকালে আলো ফোটার পর রান্না-বান্না করার জন্য বাসন-কোশন নিয়ে বের হয়েছিলেন কামারজানীর মাঝিপাড়ার গৃহিনী সাধনা রানী। হঠাৎ ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙন শুরু হওয়ায় চুলোয় হাড়ি দিতে পারেননি। তড়িঘড়ি করে ছেলেমেয়েদের নিয়ে ঘড়বাড়ি আর আসববাপত্র সরিয়েছেন। চোখের সামনে বিলীন হয়ে যায় তার আশ্রয়স্থল। ৫ ছেলেমেয়েকে নিয়ে এখন দিশেহারা তিনি। কোথাও যাওয়ার জায়গা নেই। নদী ভাঙনের শিকার আরেক নারী জোছনা রাণী দাস। তার ভিটেমাটিও রক্ষা পায়নি ব্রহ্মপুত্রের গ্রাস থেকে। ধসে গেছে বাড়ি ভিটা। স্ব-পরিবারে ব্রহ্মপুত্রের পাড়ে পলিথিনে মোড়ানো ডেরায় মাথা কোনমতে মাথা গুঁজে আছেন। কিন্তু পেটের ক্ষুধা মেটাবেন কী দিয়ে? স্বামী-সন্তানরা মাছ ধরতে পারছেন না। জীবিকা নির্বাহের পথরুদ্ধ হওয়ায় চরম বিপাকে পড়েছেন সাধনা ও জোৎ¯œা দাসের মতো মাঝিপাড়ার জেলে পরিবারগুলো। সাধনা রানী বলেন, ধারকর্জ করে অনাহারে-অর্ধাহারে কোনমতে দিন গুজরাচ্ছে। বন্যা যাতে না যাতে ভাঙন হামার সোগ শ্যাষ করি দিলো। একই এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত আরেক ব্যাক্তি জানালেন, বেশ কয়েকদিন আগে কয়েক কেজি চাউল আর চিড়া গুড় দিছিলো, তাক দিয়ে আর কয় দিন চলে।

ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনে সর্বস্ব হারানো জোছনা রাণী দাস বলেন, আজও সরকারি কোন সাহায্য তার কপালে জোটেনি। তার অভিযোগ যারা ত্রাণ দেয় অনেক দু:স্থ্য মানুষ তাদের চোখে পড়ে না। এমন পরিস্থিতিতে জোছনা রাণী দাসের মতো ভাঙন কবলিত অসহায় মানুষগুলোর চোখে এখন শুধুই শূন্যতা ।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবু সাঈদ বলেন, সরকারীভাবে বরাদ্দকৃত যা পাচ্ছেন তা জন সাধারণের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। আপাতত তাদের কিছুই করার নেই। তিনি বলেন, ভাঙনে সর্বস্বহারা মানুষ গুলোকে পূণর্বাসনের পাশাপাশি ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙন রোধে স্থায়ী কাজ করা দরকার।

গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা করার মতো পর্যাপ্ত উপকরণ তাদের হাতে আছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে কথা বলে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন তিনি। এদিকে ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী কাজের জন্য একটি প্রকল্প যাচাই-বাছাইয়ের পর্যায়ে রয়েছে বলে জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান।

ছবি: কুদ্দুস আলম



Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ছবি সংবাদ

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ফটো গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ফটো ফিচার

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ভিডিও গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ভিডিও প্রতিবেদন

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

সর্বশেষ খবর

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা
ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা
ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা ফটো ক্যাপশনঃ কামারজানীর মাঝিপাড়ায় এখন শুধুই শূন্যতা
Gaibandha.News Logo

ফটো ফিচার

বড় করে দেখতে ছবিতে ক্লিক করুন

ফটো ফিচার
হলি আর্টিজান হামলার রায় আজ, আদালত চত্বরে বিশেষ নিরাপত্তা

গাইবান্ধা ডট নিউজ | বুধবার ২৭ নভেম্বর ২০১৯

গাইবান্ধা ডট নিউজ: কুদ্দুস আলম


গাইবান্ধা সদর উপজেলার কামারজানির ইউনিয়নের মাঝিপাড়া। ব্রহ্মপুত্র নদের জলে জাল ফেলে স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে ভালোই যাচ্ছিল তাদের দিনকাল। সকাল-সন্ধ্যা নদে মাছ ধরে বাজারে বিক্রি করে যা আয় হয়, তা দিয়ে ছেলে মেয়েদের পড়নে একট টুকরো মোটা কাপড় আর ডাল ভাতের জোগাড় হতো। কেউ কেউ ছেলেমেয়েদের স্কুলে পাঠিয়ে স্বপ্ন দেখতেন ভবিষ্যৎ গড়ার। কিন্তু সেই স্বপ্ন আর বাস্তবায়ন হচ্ছে না। বাধ সেধেছে ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙন।

আজ বুধবার (০২ আগস্ট) সকালে আলো ফোটার পর রান্না-বান্না করার জন্য বাসন-কোশন নিয়ে বের হয়েছিলেন কামারজানীর মাঝিপাড়ার গৃহিনী সাধনা রানী। হঠাৎ ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙন শুরু হওয়ায় চুলোয় হাড়ি দিতে পারেননি। তড়িঘড়ি করে ছেলেমেয়েদের নিয়ে ঘড়বাড়ি আর আসববাপত্র সরিয়েছেন। চোখের সামনে বিলীন হয়ে যায় তার আশ্রয়স্থল। ৫ ছেলেমেয়েকে নিয়ে এখন দিশেহারা তিনি। কোথাও যাওয়ার জায়গা নেই। নদী ভাঙনের শিকার আরেক নারী জোছনা রাণী দাস। তার ভিটেমাটিও রক্ষা পায়নি ব্রহ্মপুত্রের গ্রাস থেকে। ধসে গেছে বাড়ি ভিটা। স্ব-পরিবারে ব্রহ্মপুত্রের পাড়ে পলিথিনে মোড়ানো ডেরায় মাথা কোনমতে মাথা গুঁজে আছেন। কিন্তু পেটের ক্ষুধা মেটাবেন কী দিয়ে? স্বামী-সন্তানরা মাছ ধরতে পারছেন না। জীবিকা নির্বাহের পথরুদ্ধ হওয়ায় চরম বিপাকে পড়েছেন সাধনা ও জোৎ¯œা দাসের মতো মাঝিপাড়ার জেলে পরিবারগুলো। সাধনা রানী বলেন, ধারকর্জ করে অনাহারে-অর্ধাহারে কোনমতে দিন গুজরাচ্ছে। বন্যা যাতে না যাতে ভাঙন হামার সোগ শ্যাষ করি দিলো। একই এলাকার ক্ষতিগ্রস্ত আরেক ব্যাক্তি জানালেন, বেশ কয়েকদিন আগে কয়েক কেজি চাউল আর চিড়া গুড় দিছিলো, তাক দিয়ে আর কয় দিন চলে।

ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙনে সর্বস্ব হারানো জোছনা রাণী দাস বলেন, আজও সরকারি কোন সাহায্য তার কপালে জোটেনি। তার অভিযোগ যারা ত্রাণ দেয় অনেক দু:স্থ্য মানুষ তাদের চোখে পড়ে না। এমন পরিস্থিতিতে জোছনা রাণী দাসের মতো ভাঙন কবলিত অসহায় মানুষগুলোর চোখে এখন শুধুই শূন্যতা ।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবু সাঈদ বলেন, সরকারীভাবে বরাদ্দকৃত যা পাচ্ছেন তা জন সাধারণের মধ্যে বিতরণ করা হয়েছে। আপাতত তাদের কিছুই করার নেই। তিনি বলেন, ভাঙনে সর্বস্বহারা মানুষ গুলোকে পূণর্বাসনের পাশাপাশি ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙন রোধে স্থায়ী কাজ করা দরকার।

গাইবান্ধা জেলা প্রশাসক গৌতম চন্দ্র পাল বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা করার মতো পর্যাপ্ত উপকরণ তাদের হাতে আছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে কথা বলে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাস দেন তিনি। এদিকে ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী কাজের জন্য একটি প্রকল্প যাচাই-বাছাইয়ের পর্যায়ে রয়েছে বলে জানান, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুবুর রহমান।

ছবি: কুদ্দুস আলম



Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ছবি সংবাদ

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ফটো গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ফটো ফিচার

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ভিডিও গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

বিভাগ ভিডিও রিপোর্ট

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

সর্বশেষ খবর

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image

Gaibandha.news Ad. image

Gaibandha.news Ad. image

Gaibandha.news Ad. image


Gaibandha.news Ad. image

গল্প-প্রবন্ধ-নিবন্ধ

মতামত-বিশ্লেষণ

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি

কৃষি-বিজ্ঞান

স্বাস্থ্য-চিকিৎসা

সাজসজ্জা

রান্নাবান্না

ভ্রমণ-বিনোদন

চারু-কারুকলা

শিশুকিশোর

ইভেন্ট ফটো গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image

ইভেন্ট ভিডিও গ্যালারী

Gaibandha.news Ad. image

আর্কাইভ

SunMonTueWedThuFriSat
1

2

3

4

5

6

7

8

9

10

11

12

13

14

15

16

17

18

19

20

21

22

23

24

25

26

27

28

29

30

31

Gaibandha.news Ad. image

ইভেন্ট বোর্ড

খোঁজখবর - চাকুরি বিঞ্জপ্তি

Gaibandha.news Ad. image

খোঁজখবর - টেন্ডার বিঞ্জপ্তি

Gaibandha.news Ad. image

খোঁজখবর - বেচাকেনা

জরীপ/ভোটাভুটি (হাঁ/না)

Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Gaibandha.news Ad. image
Activities

© 2020 Gaibandha.News. All rights reserved. Inspired by w3schools.com

Crafted with by arccSoftTech & Powered with CSR by arccY2K.com a Subsidiary of BangladeshICT.com